সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং ৪ পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ,২৯ রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

দাঁড়িয়ে পানি পান ইসলামে নিষেধ

AmaderIslam.COM
ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৭
news-image

ইসলাম ডেস্ক : আবু হুরায়রা রা. বর্ণনা করেন, রাসূল সা. বলেছেন, ‘কারও দাঁড়িয়ে পানি পান করা উচিৎ নয়। যদি কেউ ভুলে যায় তাকে অবশ্যই বমি করতে হবে।” সহিহ মুসলিম

এই হাদিসটার হুকুম কখন বর্তাবে বা দাঁড়িয়ে পান করা কি তাহলে হারাম ? তাহলে ভুলে, অথবা ইচ্ছাকৃত ভাবে দাঁড়িয়ে পান করলে কি হুকুম বর্তাবে?

উত্তর

স্বাভাবিকভাবে দাঁড়িয়ে পানি পান করা মাকরূহে তানজিহী। কিন্তু বিশেষ প্রয়োজনে দাঁড়িয়ে পানি করাতে কোন সমস্যা নেই। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে দাঁড়িয়ে পানি পান করতে যেমন নিষেধাজ্ঞা এসেছে, তেমনি তিনি নিজেই এবং সাহাবাগণ থেকে দাঁড়িয়ে পানি পানের বিবরণও এসেছে।

যা প্রমাণ করে, স্বভাবিকভাবে দাঁড়িয়ে পানি পান করা নিষেধ। কিন্তু কোন বিশেষ প্রয়োজনে তা বৈধ আছে। যেমন বসার জায়গা নেই ইত্যাদি।

হযরত আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, তোমাদের কেউ যেন দাঁড়িয়ে পান না করে, তবে যদি ভুলে যায়, তাহলে যেন বমি করে দেয়। [সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২০২৬]

আমর বিন শুয়াইব এর এক বর্ণনায় পাওয়া যায়, আমি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে দাঁড়িয়ে ও বসে পান করতে দেখেছি। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১৮৮৩]

কাবশাতুল আনছারিয়্যা রা. থেকে বর্ণিত। একদা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার নিকট প্রবেশ করলেন। তার নিকট একটি ঝুলন্ত পানির পাত্র ছিল। তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তা থেকে দাঁড়িয়েই পান করলেন। [সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩৪২৩]

হযরত ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমরা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের যুগে হেটে, দাঁড়িয়ে খাবার গ্রহণ ও পান করেছি। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১৮৮০]

উত্তর লিখেছেন, লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

সূত্র : আহনাফ মিডিয়া সার্ভিস