মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং ১১ আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ,৫ মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

শয়তান তোমাদেরকে অভাবের ভয় দেখায়

AmaderIslam.COM
মার্চ ১৫, ২০১৭
news-image

ওয়ালি উল্লাহ সিরাজ : পবিত্র কুরআনে আল্লাহপাক ইরশাদ করেছেন, শয়তান তোমাদের অভাবের ভয় দেখায়, আর তোমাদের অশ্লীল কাজ করতে তাগাদা দেয়। কিন্তু আল্লাহ তোমাদেরকে তাঁর পক্ষ থেকে ক্ষমা এবং প্রাচুর্যের নিশ্চয়তা দেন। আল্লাহ তো সবকিছু ঘিরে আছেন, তিনি সব জানেন। (আল-বাক্বারাহ ২৬৮)

শয়তান যখন মানুষকে অভাবের ভয় দেখিয়ে দান করা থেকে দূরে রাখতে পারে, তখন সে মানুষের উপর জিতে যায়। চারিদিকে এত অভাব, এত মানুষের কষ্ট, মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এত সুযোগ, আল্লাহর পথে খরচ করার এত ব্যবস্থা এগুলো সব দেখেও মানুষ যখন প্রতিটা দিন শয়তানের কথা শুনে চোখ-কান বন্ধ করে রাখতে পারে, সে তখন তার বিবেকের চাবি শয়তানের হাতে দিয়ে দেয়। একবার শয়তান যখন কারও বিবেককে অন্ধ করে দিতে পারে, তখন সে তাকে দিয়ে সহজেই অশ্লীল কাজ করিয়ে নিতে পারে। আল্লাহর পথে দান করা থেকে আটকানো হচ্ছে মানুষের বিবেকের উপর জয়ী হয়ে যাওয়ায় এক ধাপ এগিয়ে যাওয়া। শয়তান যখন এভাবে বিবেকের নিয়ন্ত্রণ দখল করে নিতে পারে, তখন সে মানুষকে দিয়ে অতি সহজে অশ্লীল কাজ করাতে পারে।

সুতরাং আল্লাহর পথে খরচ করা হচ্ছে আমাদের জন্য এক মানসিক যুদ্ধ। আমরা যখন এই যুদ্ধে জয়ী হই, তখন শয়তানের কুমন্ত্রণার হাত থেকে নিজেদেরকে বাঁচানোর জন্য আরও শক্তিশালী হই। এভাবে আমাদের ঈমানের জোর বাড়ে, আমরা নিজেদেরকে অশ্লীল কাজ থেকে তত বেশি দূরে রাখতে পারি। যারা নিজেদেরকে অশ্লীল কাজ থেকে দূরে রাখতে পারছেন না, তাদের আসল সমস্যা হচ্ছে তাদের বিবেকের আসনে আর তিনি বসে নেই, বসে আসে শয়তান। সুতরাং প্রথমে নিজের ভেতরে যুদ্ধ করে আগে সেই শয়তানকে দূর করতে হবে। আর এর জন্য এক মোক্ষম উপায় হচ্ছে আল্লাহর পথে খরচ করা, যত কষ্টই হোক না কেন, যত দুশ্চিন্তাই আসুক না কেন, যতই ভয় লাগুক না কেন। আল্লাহ আমাদের তাওফিক দান করুন। আমীন।