মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং ১১ আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ,৫ মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

সারা দেশে নির্মাণ হচ্ছে ৫৬০ টি মডেল মসজিদ

AmaderIslam.COM
এপ্রিল ৭, ২০১৭
news-image

ওমর শাহ : সারা দেশে নির্মাণ হচ্ছে ৫৬০টি মডেল মসজিদ। দেশের সব জেলা, সিটি কর্পোরেশন ও উপজেলায় এসব মসজিদ নির্মাণ করা হবে। এগুলোর মধ্যে ৬৪টি জেলায় ও উপকূলীয় এলাকায় ১৬টি চারতলা বিশিষ্ট মসজিদ নির্মাণ করা হবে। অবশিষ্ট মসজিদগুলো হবে তিনতলা বিশিষ্ট। এসব মসজিদে প্রতিদিন চার লাখ ৪০ হাজার ৪৪০ জন পুরুষ ও ৩১ হাজার ৪০০ জন নারীর নামাজের ব্যবস্থা থাকবে।
ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্র জানিয়েছে, এসব মসজিদ নির্মাণে মোট প্রস্তাবিত ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ৯ হাজার ৬২ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৮ হাজার ৯২৬ কোটি টাকা থাকবে সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ এর অনুদান।

তিন ক্যাটাগরিতে মসজিদগুলো নির্মিত হবে। এ-ক্যাটাগরিতে ৬৮টি চারতলা বিশিষ্ট মডেল মজজিদে থাকবে লিফট। এগুলো নির্মাণ হবে ৬৪টি জেলা শহরে এবং চারটি সিটি কর্পোরেশন এলাকায়। এগুলোর আয়তন হবে দুই লাখ ৮১ হাজার ৫৮৪ বর্গমিটার। এক লাখ ৬৪ হাজার ৭৪২ বর্গমিটার আয়তনের বি-ক্যাটারির মসজিদ হবে ৪৭৬টি। আর ৬১ হাজার ২৫ বর্গমিটার আয়তনের সি ক্যাটাগরির মসজিদ হবে ১৬টি।

লাইব্রেরি সুবিধাও থাকবে মডেল মসজিদগুলোতে। প্রতিদিন ৩৪ হাজার পাঠক এক সঙ্গে কোরআন ও ইসলামিক বই পড়তে পারবেন। ইসলামিক বিষয়ে গবেষণার সুযোগ থাকবে ৬ হাজার ৮০০ জনের। ৫৬ হাজার মুসল্লি সব সময় দোয়া, মোনাজাত করাসহ তসবিহ পড়তে পারবেন।
মসজিদগুলো থেকে প্রতি বছর ১৪ হাজার হাফেজ তৈরির ব্যবস্থা থাকবে। আরো থাকবে ইসলামিক নানা বিষয়সহ প্রতিবছর ১ লাখ ৬৮ হাজার শিশুর প্রাথমিক শিক্ষার ব্যবস্থা। ২ হাজার ২৪০ জন দেশি-বিদেশি অতিথির আবাসন ব্যবস্থাও গড়ে তোলা হবে প্রকল্পের আওতায়। পবিত্র হজ পালনের জন্য করা হবে ৫০ শতাংশ ডিজিটাল নিবন্ধনের ব্যবস্থা।
এসব মসজিদে আরো থাকবে ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, মৃতকে গোসল করানোর কক্ষ। উপকূলীয় এলাকার মসজিদগুলোতে নিচ তলা ফাঁকা থাকবে।
ক’বছর আগেই সৌদি অনুদানে এসব মসজিদ নির্মাণের কথা ছিলো। কিন্তু অনুদান না পাওয়ায় দীর্ঘদিন প্রকল্পটি ঝুলে ছিলো। গত বছরের জুনে (৩-৭ জুন) সৌদি আরব সফর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সফরে দ্বিপক্ষীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতি জেলা ও উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন-সংক্রান্ত প্রাথমিক প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়। সর্বশেষ বুধবার (৫ এপ্রিল) ভোরে বাংলাদেশে আসা মক্কা ও মদিনার দুই ইমামসহ ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।
শুরু থেকেই ৫৬০টি মডেল মসজিদ প্রকল্প প্রণয়নে দিনরাত পরিশ্রম করেছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক (পরিকল্পনা) লুৎফর রহমান সরকারসহ প্রায় এক ডজন কর্মকর্তা।