শনিবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৮ ইং ২৬ কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ,১ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

নবীজি আগে মিষ্টি খাওয়া ছেড়েছেন, তারপর মিষ্টি খেতে নিষেধ করেছেন!

AmaderIslam.COM
আগস্ট ১১, ২০১৮
news-image

ওমর শাহ: কিছু মানুষকে একটি কাহিনী বলতে শোনা যায়, একবার এক সাহাবি নিজ সন্তানকে নিয়ে নবীজীর কাছে এলেন। বললেন, আল্লাহর রাসূল! আমার ছেলে খুব বেশি মিষ্টি খায়, দয়া করে আপনি তাকে বারণ করুন। নবীজী বললেন, তিন দিন পরে আস। সাহাবী তিন দিন পরে এলে নবীজী তার ছেলেকে মিষ্টি খাওয়া থেকে বারণ করলেন।

নবীজী কেন তিন দিন পরে আসতে বললেন, এর কারণ জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বললেন, এই তিন দিনে আগে আমি নিজে মিষ্টি খাওয়া ছেড়েছি তারপর তাকে নিষেধ করেছি।

কোনো কাজের কথা অন্যকে বলতে হলে আগে নিজে আমল করা উচিত, এ বিষয়টিকে সামনে আনার জন্য এ কিসসাটির অবতারণা করা হয়। অথচ এটি একটি বানোয়াট কিসসা; এর কোনোই ভিত্তি নেই। এর কোনো সনদও পাওয়া যায় না। এমনকি কোনো নির্ভরযোগ্য হাওয়ালাও নয়।

মিষ্টি খাওয়া তো কোনো গুনাহের কাজ নয় যে, তা বেশি খেতে বারণ করার জন্য নিজেকে মিষ্টি খাওয়া ছেড়ে দিতে হবে। হাঁ, কোনো বিষয়ে অন্যকে উপদেশ দেয়া বা নিষেধ করা আর নিজে সে অনুযায়ী আমল না করা বা বিরত না থাকা নিন্দনীয়। কিন্তু এর অর্থ এটা নয় যে, কোনো বিষয় নিজের মাঝে আমল না থাকলে অন্যকে বলা যাবে না; এমনটি ধারণা করা ঠিক নয়। অন্যকে আমলের বা বিরত থাকার উপদেশ দিবে, সাথে সাথে নিজেও আমলের চেষ্টা করবে। কারণ অনেক সময় অন্যকে বলার দ্বারা নিজেরও আমলের তাওফীক হয়। সূত্র: আল কাউসার