শনিবার, ১৫ জুন, ২০১৯ ইং ১ আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,১০ শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

নারীর উচ্চশিক্ষার পক্ষে আলেমদের অভিমত

AmaderIslam.COM
জানুয়ারি ১৮, ২০১৯
news-image

আমিন মুনশি : ইসলাম ধর্মে শিক্ষার বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আল্লাহর বাণী পবিত্র কোরআন মাজিদ অবতীর্ণের শুরুই হয়েছিল- ‘পড়ো’ শব্দ দিয়ে। আল্লাহ তায়ালা নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সকল মুসলমানের জন্যই শিক্ষা গ্রহণকে আবশ্যক করে দিয়েছেন। রাসুলের (সা.) যুগ থেকেই তাই শিক্ষাগ্রহণ এবং শিক্ষাদানের বিভিন্ন পদ্ধতির প্রচলন রয়েছে। চলমান প্রেক্ষাপটে নারীর শিক্ষালাভের ব্যাপারে যখন অনেককে সন্দেহপ্রবণ দেখা যাচ্ছে তখন এ বিষয়ে কয়েকজন বিশিষ্ট আলেমের অভিমত পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

জাতির স্বার্থেই নারীর শিক্ষিত হওয়া প্রয়োজন : ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ
চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা

‘মানবতার ধর্ম ইসলাম নারীদেরকে সবক্ষেত্রেই তাদের অধিকার নিশ্চিত করেছে। এখন শুধু সমঅধিকারের প্রশ্ন নয়, বাস্তব কথা হলো, ইসলাম নারীদেরকে বহুক্ষেত্রে পুরুষের তুলনায় অনেক বেশি অধিকার দিয়েছে। নারী শিক্ষা তো খুবই প্রয়োজনীয় একটি বিষয়। নারী শিক্ষিত হলে সন্তানও শিক্ষিত হবে। আর তাই জাতির স্বার্থেই নারীর শিক্ষিত হওয়া প্রয়োজন।’

নারীদেরকে শিক্ষিত হতে উৎসাহিত করে ইসলাম : মিসবাহুর রহমান চৌধুরী
চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট

‘নারীসমাজকে শিক্ষিত হতে, স্বাবলম্বী হতে উৎসাহিত করে ইসলাম। তাই ইসলামি অর্থব্যবস্থাতে নারীর অধিকারের বিষয়টি গুরুত্বসহ এসেছে। নবীজির যুগে হযরত আয়েশা (রা.) প্রায় ১ লক্ষ সাহাবির শিক্ষকতা করেছেন। অন্যদিকে হযরত সালমা (রা.) ছিলেন রাসুলের (সা.) সামরিক উপদেষ্টা। সুতরাং আমাদের দায়িত্ব, তাদের শালীনতা ও নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা। তাদেরকে এগিয়ে যেতে সহযোগিতা করা।’

শিক্ষা অর্জন করা ফরজ, পর্দা করাও ফরজ : শামীম আফজল
মহাপরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ

‘আমাদেরকে মনে রাখতে হবে, ইসলামে নারী-পুরুষের শিক্ষা অর্জনকে যেমন ফরজ বলে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে তেমনি পর্দার বিধানকেও ফরজ করা হয়েছে। কোনটিকেই খাটো করে বা হালকা করে দেখার অবকাশ নেই। ইসলামের শিক্ষা মানুষকে আধুনিকতা দিয়েছে। জ্ঞান-বিজ্ঞান আমদানিও করেছে পবিত্র ধর্ম ইসলাম।’

নারীদের জন্য পৃথক শিক্ষালয়ের ব্যবস্থা করা দরকার : মুফতি ফয়জুল্লাহ
যুগ্ম মহাসচিব, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ

‘নারীদের শিক্ষা-দীক্ষায় নিষেধ করা অন্যায় হবে। আমরা বলেছি, তাদের জন্য পৃথক শিক্ষালয়ের ব্যবস্থা করা হোক। সহশিক্ষার কারণেই আজকাল ধর্ষণ-ব্যভিচার, ইভটিজিং বেড়ে যাচ্ছে। নারীদের জন্যে নিরাপদ পরিবেশ এবং শালীন পোষাকের ব্যবস্থা করা হলে সমাজে শান্তি ফিরে আসবে। স্বস্থি আসবে অভিভাবকদের মনে। আর এটা ধারণা করলে গুনাহ হবে যে, ইসলাম নারীদেরকে দমিয়ে রাখতে চায়।’