বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯ ইং ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,২০ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

একুশে বইমেলায় আলোচনার শীর্ষে ছিল ইসলামি ঘরানার কিছু বই

AmaderIslam.COM
এপ্রিল ১৭, ২০১৯
news-image

তৌহিদ রহমান : বছর পেরিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রতিবারের ন্যায় এবারও বসে অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৯। গ্রন্থমেলা মানেই তো জ্ঞানের মেলা। নতুন বইয়ের ঘ্রাণ। প্রাণের স্পন্দন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দীপ্ত প্রাণের স্পন্দন। সেইসঙ্গে তারুণ্যের মেলা। তাই গ্রন্থমেলা ভীষণভাবে কাছে টানে। গ্রন্থমেলায় আসলে পাঠক অন্যরকম মুগ্ধ হয়। এর কোলাহল পাঠককে আনন্দ দেয়। মেলা মানেই সম্ভাবনা। মেলা মানেই বাঙালি সংস্কৃতির স্ফুরণ।

সারাবছর একজন বইপ্রেমি পাঠক যেমনিভাবে প্রাণের গ্রন্থমেলার অপেক্ষার প্রহর গুণে। ঠিক তেমনিভাবে অপেক্ষা করে প্রিয় লেখকের বইয়ের। প্রতিবারের ন্যায় অমর একুশে গ্রন্থমেলায় ইসলামী ঘরানার প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানসমূহের অনুপস্থিতি নিয়ে পাঠক-দর্শকদের হতাশা আর অভিযোগ-অনুযোগ ছিল বেশ। কিন্তু এতকিছুর পরও গ্রন্থমেলায় ইসলামী ঘরানার নবীন-প্রবীন লেখকদের উপস্থিতি এবং তাদের প্রকাশিত বইগুলোর প্রতি পাঠকদের আগ্রহ বাড়ছে দিনদিন চোখে পড়ার মতো। তাইতো অনেকেই মনে করেন, এক সময় ইসলামী ধারার তরুণদের প্রতিনিধিত্ব অস্বীকার করার সুযোগ থাকবে না কথিত নামকরা প্রগতিশীলদের। পুরো গ্রন্থমেলার প্রতিনিধিত্ব করবে সুস্থ সাহিত্যে লালানকারী ইসলামী ধারার লেখকরা।

প্রতিবারের ন্যায় এবারও বেশ কিছু বই প্রকাশ হয়েছে। তন্মধ্যে হতে মাকতাবাতুল আযহার থেকে প্রকাশ হয়েছে সিরাতের উপর বিশাল আয়োজন ‘সীরাত বিশ্বকোষ’ (১-১১)এছাড়াও একুশে গ্রন্থমেলায় এসেছে আবু লুবাবা শাহ মনসুর রচিত, আবদুর রশীদ তারাপাশি অনিূদিত ‘স্পেন টু আমেরিকা’ আরিফ আজাদের প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ’- ২’কথা সাহিত্যক রশীদ জামীলের ‘একটি স্বপ্নভেজা সন্ধ্য  এবং ‘সুখের মতো কান্না প্রখ্যাত দাঈ ও ওয়ায়েজ হাবিবুর রহমান মিছবাহের ‘নিউ ভার্সন অব লাভ’ এবং ‘বদলে যাও বদলে দাও’ কবি মুসা আল হাফিজের মৃত্যুর জন্মদিন, মুক্তি আনন্দে আমিও হাসবো, শতাব্দীর চিঠি,  ভাবনার বীজতলা, চার কবি: চিত্ত্বের পাসওয়ার্ড, এম এ আসাদ চৌধুরী সম্পাদিত মননের কবি, বৈদগ্ধের দৃষ্টিতে ডা. শামসুল আরেফীনের মানসাঙ্ক’ (ধর্ষণও যৌন হয়রানির মানসাঙ্ক) এবং কুররাতু আইয়ুন জহির উদ্দিন বাবরের ‘ইতিহাসের বোবাকান্না’ ড. আলি মুহাম্মাদ সাল্লাবি রচিত, কাজী আবুল কালাম সিদ্দীক অনূদিত খারেজি’ (উৎপত্তি, বিকাশ ও ক্রমধারা) আলী হাসান উসামার ‘ফিতনার বজ্রধ্বানি’রোকনর রাইয়ানের  ‘ভ্যারাইটিজ স্টোর এবং ‘লাইফ সাপোর্ট’ মাসউদুল কাদিরের ‘একটি রঙিন ভোর’ সাব্বির জাদীদের ‘ভাঙনের দিন’ মুফতী রেজাউল কারীম আবরারের‘প্রাচ্যবিদদরে নখরদন্ত’ এবং ‘ইসলাম ও কুফুরের সংঘাত’ আবদুল্লাহ আল মাসউদের‘অসংগতি’ আবদুল্লাহ মাহমুদ নজীবের ‘সবুজ চাঁদে নীল জোছনা’ (কবিতার বই) জিয়াউল হকের ‘ইসলাম সভ্যতার শেষ ঠিকানা’ তানভীর এনায়েত-এর কাসিদায়ে আফরি‘ আবু তাহেরের ‘জঙ্গল বাড়ির রহস্যময় চোখ’ ওমর শাহের ‘যে জীবন আসমানের’ ইলিয়াস হাসানের ‘মেঘে ঢাকা রোদ’ কবি কাউসার মাহমুদের ‘ঠাণ্ডা গোশত’ নকীব মাহমুদের‘মুস্তফা’ মাহমুদুল হক জালীসের ‘স্বর্গীয় গন্দম ইমাম আবু বকর আজুররি বাগদাদি রচিত, আবুল কালাম আযাদ অনূদিত উলামাচরিত’ ড. আলি মুহাম্মাদ সাল্লাবি রচিত, আইনুল হত কাসিমী অনূদিত ‘লায়ন অব দ্য ডেজার্ট’ (উমর মুখতার রহ. এর জীবনী) নাজমুল ইসলাম কাসিমীর বিস্ময়বালক হামমাদ সাফি’ শাহজাহান শাহেদেরে ‘ছন্দ হাসে দুর্বাঘাসে’ শাহনুর শাহিনের ‘হামসাফার’ ইমরান হুসাইন চৌধুরী-এর ‘হেরার আলোর খোঁজে’ মাজিদা রিফারকুরআনি গল্পগুচ্ছ’ (ছোটদের বই) এছাড়াও পঞ্চাশ তরুণের সংসার ‘তারুণ্যের গল্পমালা’

অমর একুশে গ্রন্থমেলার  ইসলামী ঘরানার বেশ কিছু লেখকদের বই বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করে। গ্রন্থমেলার তৃতীয় সপ্তাহে এসেও সবচেয়ে আলোচিত বইয়ের নামের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-২। মেলাতে আসার পর প্রথম দিনেই বইটির সকল প্রিন্ট কপি বিক্রি হয়ে যায়। প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ প্রথম পর্বটিও ছিল গত ২ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিক্রিত বইগুলোর একটি। বই বিক্রি সম্পর্কিত অনলাইন বিপণন সাইট রকমারি ওয়েবসাইট ভিজিট করে দেখা গেছে তাদের সকল সময়ের সবচেয়ে বেশি বিক্রির তালিকাতে এক নাম্বারে রয়েছে এ বইটি।

বইটি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ব্যাপক আলোচনা ছিল। নতুন পর্বটি নিয়েও চলে ব্যাপক আলোচনা। প্রথম পর্বের জনপ্রিয়তার কারণে দ্বিতীয় পর্বটি নিয়েও প্রকাশের আগে থেকেই বই পড়ুয়াদের সোশ্যাল মিডিয়া কমিউনিটিতে চলছিল ব্যাপক আলোচনা। প্রকাশের প্রথম ৩ দিনেই বাজারে এত বেশি বিক্রি নিয়ে বই পাঠকদের গ্রুপগুলোতে রীতিমত চলছে আলোচনার ঝড়।

এদিকে বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী লেখক ওয়ায়েজ  হাবিবুর রহমান মিছবাহ লিখিত`বদলে যাও বদলে দাও‘ শেষ সময়ে আলোচনায় এসেছে। ২০১৮ বইমেলায় প্রকাশিত— ‘বদলে যাও বদলে দাও’ বইটি ‘নবসাহিত্য’ প্রকাশনীর বেস্ট সেলার ছিল। ২০১৯ গ্রন্থমেলায় লেখকের নতুন বই ‘নিউ ভার্সন অব লাভ’। ‘বাড কম্প্রিন্ট এন্ড পাবলিকেশন্স’ থেকে প্রকাশিত বইটি ১৬ ফেব্রুয়ারি মোড়ক উন্মোচনের পর থেকেই পাঠকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল। বইটির দ্বিতীয় সংস্করণও বের হচ্ছে।

এছাড়াও শেষ সময়ে এসে রশীদ জামীলের ‘একটি স্বপ্নভেজা সন্ধ্য, জহির উদ্দিন বাবরের‘ইতিহাসের বোবাকান্না মাকতাবাতুল আযহারের ‘সীরাত বিশ্বকোষ’, আলী হাসান উসামার ‘ফিতনার বজ্রধ্বানি’ রেজাউল কারীম আবরারের ‘প্রাচ্যবিদদরে নখরদন্ত’ সাব্বির জাদীদের ‘ভাঙনের দিন’ নাজমুল ইসলাম কাসিমীর ‘বিস্ময়বালক হামমাদ সাফি’ ওমর শাহ-এর ‘যে জীবন আসমানের’কবি কাউসার মাহমুদেরর ‘ঠাণ্ডা গোশত’ নকীব মাহমুদের ‘মুস্তফা’মাহমুদুল হক জালীসের ‘স্বর্গীয় গন্দম বেশ আলোচনায় ছিলো।